Thokbirim | logo

২০শে ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ | ৪ঠা মার্চ, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

কেনিয়ার কৃষকরা হাতি তাড়াচ্ছে মৌমাছি দিয়ে

প্রকাশিত : জুলাই ০৬, ২০২৩, ১১:৫৭

কেনিয়ার কৃষকরা হাতি তাড়াচ্ছে মৌমাছি দিয়ে

কেনিয়ায় হাতির তাণ্ডব থেকে ফসল রক্ষায় ব্যতিক্রমী উদ্যোগ নিয়েছে কৃষকরা। ফসলি জমিতে হাতিরা যেন ঢুকতে না পারে সেজন্য মৌমাছি ব্যবহার করছেন তারা। কৃষকরা বলছেন, মৌমাছির ভনভন শব্দে ভয় পেয়ে হাতিরা ফসলি জমিতে প্রবেশ করে না।

খাবারের সন্ধানে কেনিয়ার সাভো জাতীয় উদ্যানে চড়ে বেড়াচ্ছে একদল হাতি। কৃষকদের অভিযোগ, তাদের ফসলি জমি নষ্ট করছে বিশালাকার এই স্তন্যপায়ী প্রাণী। ফলে, ব্যাপক ক্ষতির মুখে পড়ছেন তারা।

হাতিরা যাতে ফসলি জমিতে ঢুকতে না পারে সেজন্য মৌমাছির সহায়তা নিচ্ছেন কৃষকরা।

কেনিয়া কৃষক জোন্স মওয়াকিমা বলেন, মাত্র আধ ঘণ্টায় হাতি খামারে ব্যাপক তাণ্ডব চালায়। মূল সমস্যা হলো তারা ফসলের ৪০ শতাংশ খায়, আর বাকিটা পায়ে পিষ্ট করে ধ্বংস করে। এর মানে বেশিরভাগই নষ্ট হচ্ছে। আমরা মৌমাছি ভালোবাসি কারণ তারা আমাদের খামার রক্ষায় সাহায্য করে।

এখানকার কৃষকদের আয়ের একমাত্র উৎস চাষাবাদ। মৌমাছি ব্যবহারের আগে বেশকিছু কৌশল নিলেও, তা কাজে আসেনি বলে জানান কৃষকেরা।

জোন্স মওয়াকিমা আরও বলেন, হাতি থেকে ফসল বাঁচাতে আমরা শিং, মরিচ ও গোবর ব্যবহার করি। রাত জেগে পাহারা দেই। মরিচ আর আদা চাষ করি, যাতে হাতিরা খেতে না পারে। ইলেকট্রিক বেড়াও লাগানো হয়। কিন্তু, সব উপেক্ষা করেই হাতিরা জমিতে ঢুকে পড়তো।

ফসল বাঁচাতে কৃষকদের পাশে দাঁড়িয়েছে যুক্তরাজ্যভিত্তিক দাতব্য সংস্থা সেভ দ্য এলিফ্যান্টস। হাতির সুরক্ষা জরুরি, বলেও মনে করে তারা। সেজন্য মৌমাছি ব্যবহার করে হাতিদের তাণ্ডব রুখতে কাজ করছে তারা। পাশাপাশি মধু সংগ্রহের মাধ্যমে কৃষকদের জন্য বাড়তি আয়েরও ব্যবস্থা করা হয়েছে।

সূত্র :  ইনডিপেনডেন্ট




সম্পাদক : মিঠুন রাকসাম

উপদেষ্টা : মতেন্দ্র মানখিন, থিওফিল নকরেক

যোগাযোগ:  ১৯ মণিপুরিপাড়া, সংসদ এভিনিউ ফার্মগেট, ঢাকা-১২১৫। 01787161281, 01575090829

thokbirim281@gmail.com

 

থকবিরিমে প্রকাশিত কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ। Copyright 2020 © Thokbirim.com.

Design by Raytahost