Thokbirim | logo

২৯শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ | ১২ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

আবিমা টেলকির স্মরণে ।। নিগূঢ় ম্রং

প্রকাশিত : আগস্ট ১৯, ২০২১, ০০:০৩

আবিমা টেলকির স্মরণে ।। নিগূঢ় ম্রং

টেলকির মাটিতে পুঁতে দিচ্ছে পুঁড়া মাটির আস্তরণ-

ইট সুরকি, সিমেন্ট আর বালুতে বনের ভিতর প্রাচীর তুলে

প্রকৃতি এবং পূজারী ধ্বংস করছে,

যেখানে সকাল হলেই পাখিদের বিচরণ,

কুহুকণ্ঠে মাতোয়ারা

সেখানে আজ যান্ত্রিক শব্দ বেপরোয়া!

করাতে গাছ কাটে

কোঁদালে মাটি খুঁড়ে

বিকট শব্দে যান্ত্রিক যন্ত্রে মিশ্রিত করছে

মাটির বুক নিশ্চিহ্ন করার প্রয়াস,

প্রকৃতিকে খেয়ে ফেলছে-

পাখিদের আবাসস্থল খেয়ে ফেলছে-

লালচে মাটির আর্তচিৎকার কানে বাজতেছে,

বনের আদি গারো গ্রাম গ্রাস করছে,

এই বন, এই মাটি, এই আবাসস্থলে মৃত্যুর পর যে পবিত্র ধরাধাম

মাংরুদাম (শ্মশান),

ওটাও খেয়ে নিচ্ছে!

আমাদের জীবনও খায় ওরা

মৃত্যুর পরও ঘুমন্ত অবস্থায় গোটা শ্মশানও খেয়ে ফেলে ওরা!

কোথায় যাবি তোরা?

হেসে হেসে আমার ঘরের উঠান বলে,

বেঁচে আছিস? বারান্দায় বস, দেখ তোর চারপাশ আঙিনা

উঠোন কীভাবে কর্পোরেট এর দখলে গিয়ে

ওরা আনন্দ খুঁজে -আমার শরীর মাড়িয়ে,

শ্মশান হেসে হেসে বলে, ঘুমিয়ে আছিস, তবুও মুক্তি নেই,

তোর উঠান কেঁদেছে,

আজ আমিও কাঁদি।

আমার শরীরে তুমি ঘুমিয়ে আছো দিব্যি!

ওরা তোর খুঁজে এসে মাংস না পাক, হাড় তো পাবে!

কঙ্কাল পাবে! ওটায় খেয়ে নিবে। সাথে আমাকে দখলে নিয়ে –

গোটা দেহে ক্ষতবিক্ষত করে আনন্দ খুঁজবে, আনন্দ করবে।



 




সম্পাদক : মিঠুন রাকসাম

উপদেষ্টা : মতেন্দ্র মানখিন, থিওফিল নকরেক

যোগাযোগ:  ১৯ মণিপুরিপাড়া, সংসদ এভিনিউ ফার্মগেট, ঢাকা-১২১৫। 01787161281, 01575090829

thokbirim281@gmail.com

 

থকবিরিমে প্রকাশিত কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ। Copyright 2020 © Thokbirim.com.

Design by Raytahost
0
Would love your thoughts, please comment.x
()
x