Thokbirim | logo

৬ই আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | ২০শে জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

সাংসারেক আচিক মান্দিদের দেব-দেবীদের নাম

প্রকাশিত : জুন ০৭, ২০২১, ১১:১১

সাংসারেক আচিক মান্দিদের দেব-দেবীদের নাম

আচিক মান্দিদের আদি ধর্মের নাম সাংসারেক। তাদেরও নিজস্ব দেব-দেবী আছে, তারাও অন্য ধর্মের মতো পূজা অর্চনা করে থাকেন। আদি সাংসারেক মান্দিদের দেবদেবীর নাম সংগ্রহ করেছি মান্দি সাংসারেক খামাল আচ্চু আম্বির কাছ থেকে শুনে শুনে। আমি যে কজনের নাম জেনেছি তাই লিখে রেখেছি। এর বাইরেও থাকতে পারে।

১। তাতারা রাবুগা : সৃষ্টি কর্তা। পৃথিবীর সকল প্রকার প্রাণির ও বস্তুর সৃষ্টিকর্তা। জীবন দাতা।

২। নস্তু-নপান্তু : সকল প্রকার প্রাণির সৃষ্টি কাজে সাহায্যকারী দেবতা।

৩। মা’চ্চি : নস্তু-নপান্তুর স্ত্রী। সৃষ্টি কাজে সাহায্যকারী দেবী।

৪। মিসি সালজং বা সালগ্রা : সকল প্রকার ফল-ফসলের ও সম্পদের দানকারী দেবতা। ওয়ানগালা উৎসবে তাকেই কৃতজ্ঞতা ও ধন্যবাদ জানানো হয়।

৫। সুসিমেমা দেবী : গৃহের খাদ্য শষ্য মজুদের রক্ষাকারী দেবী।

৬। রুক্ষীমেমা : আহারের জন্য প্রস্তুত খাদ্যের রক্ষাকারী দেবী। কেহকেহ শূচি বায়ূ দেবীও বলে।

৭। চুরা বুদি : ক্ষেতের ফসল রক্ষাকারী দয়ালু দেবতা।

৮। গয়রা বা গোয়েরা : বজ্র বিৎদ্যুতের দেবতা। মানুষের অপমৃত্যুর হাত থেকে রক্ষাকারী দেবতা।

৯। খালখামে-খালাগ্রা : দেবতা গয়রার ছোট ভাই। আচিক মান্দিদের বন্যপশুর আক্রমণ থেকে রক্ষাকারী দেবতা। আকস্মিক দুর্ঘটনার হাত থেকে রক্ষাকারী দেবতা ।

১০। নকনি মিদ্দে-রংদিক মিদ্দে : চাউল যে পাত্রে সংরক্ষণ করে। মিসি সালজং বা সালগ্রা, সুসিমেমা ও রুক্ষীমেমা দেবতাদের অনুগ্রহ ও আশীর্বাদ ছাড়া মানুষের জীবন ধারণ অসম্ভব। তাই একে তিন দেবতার হাত বলে।

১১। সুসুমি দেবী : বিদ্যা, বুদ্ধি ও কুটনীতি ধারক ও বাহক। আচ্চু আম্বীদের মুখে শোনা এই সুসুমি দেবী, অন্ধত্ব, পঙ্গুত্ব, বোবা, কালা প্রভৃতি জরা ব্যধির কারণ। পৌরাণিক কাহিনিতে পৃথিবী সৃষ্টির জন্য তাতারা রাবুগা এই দেবী সুসুমির পরামর্শ গ্রহণ করেন। পৃথিবী সৃষ্টির পর নিজেদের সাদৃশ্যে মানুষ সৃষ্টির জন্যও এই দেবীর পরামর্শক্রমে সকল দেবতাদের কাছে ডাকেন সৃষ্টি কর্তা তাতারা রাবুগা। পরে মানুষ সৃষ্টির পর পৃথিবীতে মানুষের বাস উপযোগী স্থার নির্ধারণের জন্য দেবী সুসুমিকেই এই পৃথিবীতে প্রেরণ করেন। আচিক মান্দিদের সব ধরণের বিদ্যা শিক্ষা দিবার জন্যও এই দেবী সুসুমিকেই আবার পৃথিবীতৈ পাঠিয়ে দেওয়া হয়।

১২। নাওয়াং : মৃত ব্যক্তিদের আত্মাদের পরপারের রাস্তার পাহাড়াদার। কথিত আছে, মৃত্যুর পর মানুষের আত্মা নাওয়াংকে পয়সা, টাকা না দিলে রাস্তা পার হওয়া যায় না। তাই আচিক মান্দিরা মৃত ব্যক্তির হাতে টাকা গুজে দেয়।

১৩। আসিমা-দিংসিমা : সুসুমি দেবীর মা। পৃথিবীর শান্তি রক্ষাকারী দেবী। কোন প্রকার প্রাণির বলি সে পছন্দ করে না। তার জন্য কোন ফল উৎসর্গ করলেই সে পরিবারে, গ্রামে শান্তি প্রদান করে।

১৪। টংরেংমা : ব্যক্তিকে সাহস দানকারী ও গৃহে শান্তি রক্ষাকারী দেবী।

১৫। আল্লেমী : সব দেবীদের রাণী।

১৬। মেগাপাফিয়া : শিশুদের সমস্ত বিপদ থেকে রক্ষাকারী দেবী।

১৭। চু রাশি : শিশুদের অপমৃত্যুর হাত থেকে রক্ষাকারী দেবতা।

১৮। আন্নিং : শিশুদের মাতৃগর্ভ থেকে বোবা, কালা, অন্ধত্বের হাত থেকে রক্ষাকারী দেবী।

১৯। চাগব : শিশুদের শয়তানের কু নজর থেকে রক্ষাকারী দেবতা।

২০। চি গিচ্ছাক : বাত রোগের আরোগ্যকারী দেবতা।

২১। ওয়াল গাথ : যুদ্ধে আঘাটের ব্যথার আরোগ্যকারী দেবতা।

২২। জগু : ফুসফুসের পীড়ার আরোগ্যকারী দেবতা।

২৩। সাল বামন : মাথা ব্যথা ও চোখের পীড়ার আরোগ্যকারী দেবতা।

২৪। উদুম মিদ্দে : পেটের পীড়ার আরোগ্যকারী দেবতা।

২৫। নচীডু-মারুচাং : পাতাল পুরীর রাজা দেবতা। ভূমিকম্প, ভূমিধ্বস থেকে মানুষকে রক্ষাকারী।

২৬। চিরিং চিমিট : পাতাল রাজার স্ত্রী দেবী। পাহাড়ের ঝর্ণার জল দানকারী দেবী।

২৭। মনজার : জীবন্ত ছোট পাথর। মানুষ সৃষ্টির জন্য অন্য গ্রহের মাটি পিঠে বহণ করে আনাতে সেও পাথর হয়ে যায়।

২৮। ডিনজার : জীবন্ত ছোট পাথর। মানুষ সৃষ্টির জন্য অন্য গ্রহের মাটি পিঠে বহণ করে আনাতে সেও পাথর হয়ে যায়।

২৯। নরে চিরে, কিমরে বকরে : বৃষ্টির দেবী।

৩০। বোন জাসকো : অরণ্য দেবতা। বনের সমুদয় প্রাণির রক্ষাকারী দেবতা।

৩১। গান্দো : অরণ্য দেবী। বোন জাসকের স্ত্রী।

৩২। দারিচিক মিদ্দে : মানুষের অঙ্গ-প্রতঙ্গ তৈরিকারী ও স্ত্রী লোকের যৌন রোগের আরোগ্যকারী দেবী।

৩৩। রুরুবে খিন্নাসে : মানুষের নারী ভুরী, ফুসফুস, যকৃৎ, কিদনী তৈরিকারী ও এই সব রোগের আরোগ্যকারী দেবী।

৩৪। জারুমে আজাবাল : বায়ু দেবতা।

৩৫। মিকখা টেম্মা স্টিল রংমা : ঘূর্ণি ঝড়ের দেবতা।

৩৬। মিসি আপিলফা : মাটির উর্বরতার দেবতা।

৩৭। সালজং গালাফা : ধান ক্ষেতের পাহারাদারের রক্ষক।

৩৮। দিম্মেং কককেং : নব দম্পতিদের আশীর্বাদ দানকারী। দিম্মেং- আদম ও কককেং- হবা।

৩৯। তোয়ারা নাংগাপা : মুর্ছা যাওয়া থেকে রক্ষাকারী।

৪০। বিদাউই মিদ্দে : সূতিকা রোগের আরোগ্যকারী দেবী।

সংগ্রহক: ইগ্নাসিউস দাওয়া



 




সম্পাদক : মিঠুন রাকসাম

উপদেষ্টা : মতেন্দ্র মানখিন, থিওফিল নকরেক

যোগাযোগ:  ১৯ মণিপুরিপাড়া, সংসদ এভিনিউ ফার্মগেট, ঢাকা-১২১৫। 01787161281, 01575090829

thokbirim281@gmail.com

 

থকবিরিমে প্রকাশিত কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ। Copyright 2020 © Thokbirim.com.

Design by Raytahost