Thokbirim | logo

২০শে ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ | ৪ঠা মার্চ, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

ছামে সেকগা রওয়া বা প্রিয় প্রেমিকাকে নিয়ে পালানো নাচ ।। তর্পণ ঘাগ্রা

প্রকাশিত : নভেম্বর ১৭, ২০২০, ২০:৫২

ছামে সেকগা রওয়া বা প্রিয় প্রেমিকাকে নিয়ে পালানো নাচ ।। তর্পণ ঘাগ্রা

এই ছামে সেকগা নাচ সবসময় একটু মধ্য বয়সের পুরুষ মহিলাকে নাচতে দেখি, যুবক-যুবতী বা ছেলে-মেয়েদের অংশগ্রহণ করতে দেখিনি। এখানে পুরুষ মহিলা জোড়া জোড়া সাত জোড় থাকবে। কিন্তু একজন পুরুষ জোড়া হবে না তার মানে তার স্ত্রী নেই, সে একা পরিবার সংসার নেই। প্রত্যেক পুরুষের গলায় দামা বা দামা  ঝুলানো থাকবে, জোড়াবিহীন পুরুষের গলাতেও দামা ঝুলানো থাকবে। মহিলা পুরুষ সাজিয়ে  গুছিয়ে পাশাপাশি দাঁড়াবে। একেবারে লাগালাগি নয় তিন ফিট ওরকমই হবে দূরে দাঁড়াবে। জোড়াবিহীন পুরুষ সবার শেষে একা একা দাঁড়াবে। এই একা দাঁড়ানো পুরুষ আসল খেলোয়াড় বা খল নায়ক। পুরুষেরা দামা বাজাবে। দামার তালে তালে মহিলারা স্বামীর পাশে থেকে নাচবে, শেষের পুরুষের জোড়া বা স্ত্রী নেই তবুও সেও দামা বাজাবে। এভাবে কিছু সময় দামা  বাজিয়ে নাচার পর জোড়াবিহীন একা পুরুষ হঠাৎ নিজের দামা  বাজিয়ে তাদের চারিদিকে দামার তালে তালে ঘুরবে, দেখবে, প্রথমে কাছে কাছে যাবে না দূরে থেকেই নাচবে। তারপর আস্তে আস্তে জায়গায় নেচে থাকা মহিলাদের কাছে যাবে। প্রথমে সবচেয়ে নিচের লাইনের মহিলার কাছে গিয়ে মহিলার মুখ দেখবে দামা বাজিয়ে। নাচতে নাচতে মহিলার ডান দিকে দেখবে পরে বাম দিকে দেখবে কথা বলবে না মুচকি হাসবে, চোখের ইশারায় মাথা নাড়িয়ে মহিলাকে ভুলাতে চেষ্টা করবে। মহিলা নাচতে নাচতে মাথা নাড়িয়ে ‘না যাব না’ ইশারা ইঙ্গিত করবে। তারপরের লাইনের আরেক মহিলার কাছে যাবে, প্রথমে একেবারে শরীর ঘেঁষে নাচবে। নিজের দামা বাজিয়ে নেচে নেচে প্রথমে ডান দিকে মাথা নিচু করে মহিলার মুখ দেখবে মুচকি হাসবে, নাচতে নাচতে মহিলার পিছন দিক দিয়ে বাম দিকে যাবে। মাথা নুইয়ে মহিলার মুখ আবার দেখবে মুচকি হাসবে, আকার ইঙ্গিতে ভালোবাসা জানাবে, চোখ টিপ মারবে, এভাবে একে একে মহিলাদের পিছনে পিছনে ঘুরবে।

শেষ লাইন থেকে  শুরু করে উপরের মাথায় দাঁড়িয়ে নৃত্যরত মহিলা পর্যন্ত গিয়ে অন্যের স্ত্রী ভাগিয়ে নিতে চেষ্টা করবে। কিন্তু মহিলারাও তার আকার ইঙ্গিতে মন গলাবে না। প্রথম চেষ্টায় না পেয়ে আবার আগের নিজের জায়গায় যাবে সবার সাথে তাল মিলিয়ে দামা বাজবে, আর নাচতে থাকবে, সঙ্গে সঙ্গে মুখের অভিনয় করবে। চিন্তা করবে, আকার ইঙ্গিতে আবার চেষ্টা করবে, মহিলাদের কাছে যাবে মন ভুলাতে চেষ্টা করবে। এক সময় এক মহিলা নাচতে নাচতে মাথা সামনের দিকে নাড়িয়ে জানিয়ে দিবে সে তার সাথে পালিয়ে যেতে রাজি। গারো ভাষায় বলে গাক গুয়ে রেনা আমমা। মহিলা রাজি হওয়ার পর সঙ্গে সঙ্গে লাইন থেকে বের হয়ে দামার তালে তালে নতুন পুরুষের সাথে নাচবে, দুইজনই হেসে হেসে নাচবে, লাইনে দাঁড়িয়ে নৃত্যরতদের মাঝখানে রেখে চারিদিকে ঘুরে নাচবে। এক বা দুই ঘুরান নাচার পর তারা দুজনে এক কোণায় গিয়ে নীরবে দাঁড়িয়ে থাকবে, পরে চলে যাওয়া মহিলার স্বামী তার স্ত্রীকে দেখবে খুঁজবে, বামে ডানে দেখবে। স্ত্রীকে দেখতে না পেয়ে নিজে দামা  বাজিয়ে নেচে নেচে লাইনের চারিদিকে ঘুরবে-খুঁজবে-দেখবে। মাঝে মাঝে দামা  বাজানো রেখে কপালে বাম হাত তুলে দূরে তাকিয়ে তার স্ত্রীকে খুঁজবে। কোথাও খুঁজে না পেয়ে দামা বাজিয়ে নেচে থাকা পুরুষদের কাছে গিয়ে নাচতে নাচতে স্ত্রী হারানোর কথা বলবে। এভাবে নেচে নেচে সব পুরুষকে একজন একজন করে বলবে। শেষে সব পুরুষ মহিলা হারিয়ে যাওয়া মহিলাকে খুঁজতে বের হবে, তারা সবাই দামা বাজিয়ে নেচে নেচে খুঁজবে, এক সময় উঠানের কোণায় হারিয়ে যাওয়া মহিলাকে দেখতে পাবে। পুরুষ তার দামা  মাটিতে রেখে ভাগিয়ে আনা মহিলার হাত ধরে থাকবে, তার খুঁজে পেয়ে মহিলা পুরুষকে উঠানের মাঝখানে নিয়ে আসবে, সব কিছুই দামার তালে তালে নেচে নেচে হবে। তারা বিচার করবে হারিয়ে যাওয়া মহিলাকে তার আসল স্বামীর হাতে দিবে, আর ভাগিয়ে নিয়ে যাওয়া পুরুষ সবার কাছে মাফ চাইবে, ইঙ্গিতে আর এ রকম হবে না বলে প্রতিজ্ঞা করবে। এখানেই ছামে সেকগা নাচ শেষ হয়, পরে সবাই দামা বাজিয়ে দামার তালে তালে উঠোন ঘুরবে, মেয়েরা হাত উঠিয়ে বিদায়ের নাচ দিতে দিতে উঠোন থেকে চলে যাবে।



ডলুবাড়ি ত্রিপুরা কামির শংকা ।। পাভেল পার্থ

সীমিত পরিসরে বর্ণিল আয়োজনে উদযাপিত হলো গুলশান-বনানী ওয়ানগালা

গারো ভাষায় প্রতিবন্ধীদের নিয়ে নির্মিত হলো নতুন গান

সহকর্মীদের কর্মজীবনে ঘটে যাওয়া ব্রাদারের কিছু স্মৃতি ।। মানুয়েল চাম্বুগং

মুখ ও দাঁতের যত্নে প্রথম যে ৩টি কাজ আপনাকে করতেই হবে ।। মার্ক প্রত্যয় রেমা

মুখ ও দাঁত নিয়ে প্রচলিত কিছু ভুল ধারণা ।। ডা. মার্ক প্রত্যয় রেমা

ব্যথাকে নয় রোগকে ভালো করুন ।।  ডেন্টাল সার্জন মার্ক প্রত্যয় রেমা

বাবা’রা কেমন হয়? ভাবি… ।। পরাগ রিছিল

ওয়ানগালার তাৎপর্য ও গুরুত্ব || রেভা. মণীন্দ্রনাথ মারাক

ওয়ানগালার ইতিহাস ।। রেভা. মণীন্দ্রনাথ মারাক

দওক্রো সুআ রওয়া বা ঘুঘু পাখির নাচ ।। তর্পণ ঘাগ্রা

বাসন্তী রেমার নতুন জীবনের সূচনা, তৈরি হচ্ছে দোকান ও পাঠাগার

শুভ বিজয়া দশমী ।। প্রতিমা বিসর্জনের মধ্য দিয়ে শেষ হল দুর্গাপূজা




সম্পাদক : মিঠুন রাকসাম

উপদেষ্টা : মতেন্দ্র মানখিন, থিওফিল নকরেক

যোগাযোগ:  ১৯ মণিপুরিপাড়া, সংসদ এভিনিউ ফার্মগেট, ঢাকা-১২১৫। 01787161281, 01575090829

thokbirim281@gmail.com

 

থকবিরিমে প্রকাশিত কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ। Copyright 2020 © Thokbirim.com.

Design by Raytahost