Thokbirim | logo

২০শে ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ | ৪ঠা মার্চ, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

ম্রো আদিবাসীদের জায়গা বেদখল করে পাঁচ তারকা হোটেল নির্মাণের প্রতিবাদে স্থানীয়দের বিক্ষোভ

প্রকাশিত : নভেম্বর ০৮, ২০২০, ১৯:১৮

ম্রো আদিবাসীদের জায়গা বেদখল করে পাঁচ তারকা হোটেল নির্মাণের প্রতিবাদে স্থানীয়দের বিক্ষোভ

আজ রবিবার (৮ নভেম্বর, ২০২০) বান্দরবান পার্বত্য জেলার চিম্বুক পাহাড়ে নীলগিরিতে পর্যটনের পাঁচ তারকা হোটেল নির্মাণের নামে ম্রো জনগোষ্ঠীর ভূমি বেদখল করে সেনাবাহিনী ও সিকদার গ্রুপের মেরিয়েট হোটেল নির্মাণের প্রতিবাদ সমাবেশ ও শোডাউন করেছে স্থানীয় ম্রো আদিবাসীরা ।

স্থানীয়দের দাবি, আবিলম্বে চিম্বুক পাহাড়ে পর্যটন ও পাঁচ তারকা হোটেল বন্ধ করতে হবে। সেখানে পাঁচ তারকা হোটেল ও পর্যটন গড়ে উঠলে ম্রোদের জীবন-জীবিকার উপর চরম আঘাত আসবে বলে স্থানীয়রা দাবি করেন।

পাহাড়ে একের পর এক পর্যটন নির্মাণ করে আদিবাসীদের ভূমি পুত্রদের উচ্ছেদ করে সংখ্যালঘু আদিবাসীদের জাতিগতভাবে নিশ্চিহ্ন করার ষড়যন্ত্র করা হচ্ছে বলে সমাবেশে অভিযোগ করা হয়। পার্বত্য চট্টগ্রামের মানুষ উন্নয়ন চায় কিন্তু উন্নয়নের নামে স্থানীয় জনগোষ্ঠীকে উচ্ছেদ করে তাদের মতের বিরুদ্ধে পর্যটন নামে ভুমি বেদখল তারা চায় না।

 

এছাড়া পার্বত্য চট্টগ্রাম চুক্তি অনুসারে পার্বত্য এলাকায় পর্যটন নির্মাণের ক্ষেত্রে স্থানীয় জেলা পরিষদ ও আঞ্চলিক পরিষদের অনুমতি প্রয়োজন, কিন্তু পাহাড়ে অদ্যবদি যতগুলো পর্যটন নির্মাণ করা হয়েছে সম্পূর্ণ আঞ্চলিক পরিষদকে পাশ কাটিয়ে নির্মান করা হয়েছে বলে সমাবেশে দাবী করা হয়। যা পার্বত্য চট্টগ্রাম চুক্তির লঙ্ঘন বলে অভিযোগ করেন। সমাবেশে সিকদার গ্রুপের এই মেরিয়েট হোটেল নির্মাণের উদ্যোগকে তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানানো হয়, একই সাথে এই পর্যটন নির্মাণ বন্ধের জন্য স্থানীয় প্রশাসন ও মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নিকট আহ্বান জানানো হয়।

প্লুং, নের তম্ম্, মং, প্রুই, তিতেং এর সুরে প্রায় ৬ শতর অধিক ম্রো আদিবাসী নারী – পুরুষ তাদের ঐতিহ্যবাহী পোশাকে নীল পাহাড় থেকে কাপ্রু পাড়া বাজার পর্যন্ত প্রতিবাদ সমাবেশ ও কালচারাল শোডাউন করেন।

লেখক  ও গবেষক ইয়াংঙান ম্রো তাঁর ফেসবুকেলিখেন-  ‘যে বাঁশির সুরে এককালে ম্রো আদিবাসীরা নেচে গেয়ে আনন্দ করতেন, যে বাঁশির সুরে তারা জুম পাহাড়ের সাথে সারাক্ষণ মিতালী করতেন, সেই বাঁশির সুরে আজ কেন ভূমি বেদখলের বিরুদ্ধে প্রতিবাদের সুর তুলতে হলো? যে বাঁশির সুর এককালে ম্রোদের মনে আনন্দ দিত, সেই বাঁশির সুরের মধ্যে আজ কেন ভূমি হারানোর আর্তনাদ আর কান্নার আওয়াজ শুনতে হলো?  এর উত্তর খুব সহজ- আমরা ভূমিজ সন্তান, আমরা আদিবাসী, আমরা মাটির মানুষের মত সহজ-সরল আর গরিব ’

।। আদিত্য ত্রিপুরা, বিশেষ প্রতিনিধি পার্বত্য চট্টগ্রাম।



সীমিত পরিসরে বর্ণিল আয়োজনে উদযাপিত হলো গুলশান-বনানী ওয়ানগালা

গারো ভাষায় প্রতিবন্ধীদের নিয়ে নির্মিত হলো নতুন গান

সহকর্মীদের কর্মজীবনে ঘটে যাওয়া ব্রাদারের কিছু স্মৃতি ।। মানুয়েল চাম্বুগং

মুখ ও দাঁতের যত্নে প্রথম যে ৩টি কাজ আপনাকে করতেই হবে ।। মার্ক প্রত্যয় রেমা

মুখ ও দাঁত নিয়ে প্রচলিত কিছু ভুল ধারণা ।। ডা. মার্ক প্রত্যয় রেমা

ব্যথাকে নয় রোগকে ভালো করুন ।।  ডেন্টাল সার্জন মার্ক প্রত্যয় রেমা

বাবা’রা কেমন হয়? ভাবি… ।। পরাগ রিছিল

ওয়ানগালার তাৎপর্য ও গুরুত্ব || রেভা. মণীন্দ্রনাথ মারাক

ওয়ানগালার ইতিহাস ।। রেভা. মণীন্দ্রনাথ মারাক

দওক্রো সুআ রওয়া বা ঘুঘু পাখির নাচ ।। তর্পণ ঘাগ্রা

বাসন্তী রেমার নতুন জীবনের সূচনা, তৈরি হচ্ছে দোকান ও পাঠাগার

শুভ বিজয়া দশমী ।। প্রতিমা বিসর্জনের মধ্য দিয়ে শেষ হল দুর্গাপূজা

নভেম্বরে নতুন গান ‘সালনি থেং’সুয়ে’ নিয়ে আসছে গারো ব্যান্ড দল-ব্লিডিং ফর সার্ভাইভাল




সম্পাদক : মিঠুন রাকসাম

উপদেষ্টা : মতেন্দ্র মানখিন, থিওফিল নকরেক

যোগাযোগ:  ১৯ মণিপুরিপাড়া, সংসদ এভিনিউ ফার্মগেট, ঢাকা-১২১৫। 01787161281, 01575090829

thokbirim281@gmail.com

 

থকবিরিমে প্রকাশিত কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ। Copyright 2020 © Thokbirim.com.

Design by Raytahost