Thokbirim | logo

২৯শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ | ১২ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

বান্দরবানে পর্যটনের নামে আদিবাসীদের ভূমি বেদখলের প্রতিবাদে খাগড়াছড়িতে ডিওয়াইএফ’র বিক্ষোভ

প্রকাশিত : অক্টোবর ১২, ২০২০, ১৯:১৪

বান্দরবানে পর্যটনের নামে আদিবাসীদের ভূমি বেদখলের প্রতিবাদে খাগড়াছড়িতে ডিওয়াইএফ’র বিক্ষোভ

বান্দরবানের চিম্বুক পাহাড়ে পাঁচতারকা হোটেল নির্মাণের নামে আদিবাসী ম্রো জাতিসত্তার জমি জবরদখল ও উচ্ছেদের প্রতিবাদে খাগড়াছড়িতে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করেছে গণতান্ত্রিক যুব ফোরাম (ডিওয়াইএফ) খাগড়াছড়ি জেলা শাখা। আজ সোমবার (১২ অক্টোবর ২০২০) সকাল ১১টায় খাগড়াছড়ি সদর এলাকায় বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

সমাবেশে বক্তব্য রাখেন পাহাড়ি ছাত্র পরিষদের জেলা সভাপতি সমর চাকমা, হিল উইমেন্স ফেডারেশনের জেলা আহ্বায়ক এন্টি চাকমা, গণতান্ত্রিক যুব ফোরামের জেলা সদস্য জুনেট চাকমা প্রমুখ।

বক্তারা বলেন, বান্দরবানের চিম্বুক পাহাড়ে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী ও সিকদার গ্রুপ কর্তৃক ম্রো জাতিসত্তাদের ৮টি গ্রাম উচ্ছেদ করে ৮০০ একর ভূমি জোরপূর্বক দখল করে পাঁচতারকা হোটেলসহ পর্যটন স্থাপনা নির্মাণের উদ্যোগ পাহাড়ি জাতিসত্তাসমূহকে নিশ্চিহ্ন করে দেয়ার একটি রাষ্ট্রীয় ষড়যন্ত্র। শাসকগোষ্ঠী দশকের পর দশক ধরে পর্যটন, পার্ক, সেনাক্যাম্প স্থাপনসহ কথিত উন্নয়নের সাইনবোর্ড বসিয়ে পাহাড়িদের হাজার হাজার ভূমি বেদখল করছে। পার্বত্য চট্টগ্রামে জাতিসত্তাসমুহকে নিশ্চিহ্ন করে দেয়ার হাতিয়ার হিসেবে ভূমি বেদখল, অন্যায় দমন-পীড়ন ও তার সাথে আদিবাসীদের নারী ধর্ষণ, ধর্ষণের পর হত্যা করা হচ্ছে বলে বক্তারা অভিযোগ করেন।

বক্তারা আরো বলেন, গত ৭ অক্টোবর চিম্বুক পাহাড় এলাকায় যুগ যুগ ধরে বসবাসরত ম্রো জাতিসত্তার জনগণ বান্দরবান জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে চিম্বুক পাহাড়ে পাঁচতারকা হোটেলসহ বিলাসবহুল পর্যটন স্থাপনা নির্মাণ বন্ধ করে জমি বেদখল ও উচ্ছেদ রোধ করার জন্য প্রধানমন্ত্রীর বরাবরে স্মারকলিপি প্রদান করেছেন। এতে তারা অভিযোগ করেছেন, ‘সম্প্রতি সেনাবাহিনীর সদস্যরা জরিপ করে বিভিন্ন স্থানে সাইনবোর্ড ও খুটি বসিয়ে দেয়, এতে করে পাড়াবাসীর শত শত বছরের সংরক্ষিত পাড়া বন, শশ্মানভূমি, জুম চাষের জমি, ফলজ-বনজ বাগানের সবকিছু দখলে চলে গিয়েছে। এই অবস্থায় কাপ্রু পাড়া, দোলাপাড়া ও এরাপাড়া উচ্ছেদ হবে। একইভাবে মার্কিনপাড়া, লংবাইতং পাড়া, মেনসিং পাড়া, রিয়ামানাইপাড়া ও মেনরিং পাড়া উচ্ছেদের মুখে পড়েছে। স্থানীয় সেনাক্যাম্প থেকে পাড়ার কার্বারী ও পাড়াবাসীদের ডেকে দখলকৃত জায়গা জমি নিয়ে কোনো কথা না বলার জন্য হুমকি দেওয়া হয়েছে’।

সমাবেশ থেকে বক্তারা অবিলম্বে চিম্বুক পাহাড়ে পাঁচতারকা হোটেলসহ সকল পর্যটন স্থাপনা নির্মাণ বন্ধ করে ম্রোদের জমি ফিরিয়ে দেয়া, বান্দরবানসহ পার্বত্য চট্টগ্রামে ভূমি বেদখল ও পাহাড়ি উচ্ছেদ বন্ধ করা এবং পাহাড়িদের প্রথাগত ভূমি আইনের সাংবিধানিক স্বীকৃতির দাবি জানান।

।। আদিত্য ত্রিপুরা, খাগড়াছড়ি



আরো পড়ুন



কাপ্তাইয়ে সেটেলার বাঙালি কর্তৃক মানসিক প্রতিবন্ধী এক আদিবাসী নারীকে ধর্ষণ

লড়াই চলছেই! মধুপুর থেকে বিরিশিরি, বিরিশিরি থেকে সিলেট ।। জাডিল মৃ

https://www.facebook.com/thokbirim/videos/782974379102661

লেখক ও মানবাধিকারকর্মী সঞ্জীব দ্রং

ব্রাদার গিউমের বাংলাদেশে বসবাসের সময় ৪০ বছর পূর্ণ হলো এই বছর। দীর্ঘ চল্লিশ বছর ধরে ব্রাদার বাংলাদেশের মানুষজনদের জন্য কাজ করে যাচ্ছেন। সেই কাজের স্বীকৃতিস্বরূপ এই প্রথম বাংলাদেশে অবস্থানরত নেদারল্যান্ডবাসী ব্রাদার গিউম নেদারল্যান্ড রাজার বিশেষ সম্মাননা পুরস্কার অ্যাওয়া্র্ড অব দ্যা কিং’ পেলেন। সেই সম্মাননা প্রাপ্তি নিয়ে কথা বলছেন বিশিষ্ট লেখক ও মানবাধিকারকর্মী সঞ্জীব দ্রং

Gepostet von Thokbirimnews.com am Freitag, 9. Oktober 2020




সম্পাদক : মিঠুন রাকসাম

উপদেষ্টা : মতেন্দ্র মানখিন, থিওফিল নকরেক

যোগাযোগ:  ১৯ মণিপুরিপাড়া, সংসদ এভিনিউ ফার্মগেট, ঢাকা-১২১৫। 01787161281, 01575090829

thokbirim281@gmail.com

 

থকবিরিমে প্রকাশিত কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ। Copyright 2020 © Thokbirim.com.

Design by Raytahost
0
Would love your thoughts, please comment.x
()
x