Thokbirim | logo

১৪ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ | ২৭শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

পুরো গ্রাম তলিয়ে গেলে টনক নড়বে প্রশাসনের?

প্রকাশিত : সেপ্টেম্বর ২০, ২০২০, ১৩:০২

পুরো গ্রাম তলিয়ে গেলে টনক নড়বে প্রশাসনের?

সবার ফেসবুক ওয়ালে ওয়ালে ভাসছে ‘সোমেশ্বরী নদী ভাঙনে ক্ষতিগ্রস্ত এলাকায় দ্রুত স্থায়ী বাঁধ নির্মাণের জন্যে প্রশাসনের কাছে জোর দাবি জানাচ্ছি।’ লেখা প্লেকার্ডটি।

নদী পাড়ের মানুষ নদী ভাঙনের কবল থেকে রক্ষা পেতে ইতোমধ্যে সরিয়ে নিয়ে যাচ্ছে যুগযুগ ধরে সাজানো বাড়ি। ঘরের টিন খুলে নেয়ার নির্মম দৃশ্যটি হাজার হাজার মানুষকে কাঁদিয়েছে, ভাবিয়েছে। কিন্তু প্রশাসনের হৃদয়ে দাগ লাগেনি! তাদের ঘুম ভাঙেনি।

খুলে নিচ্ছে ঘরের টিন

খুলে নিচ্ছে ঘরের টিন

 

ঘরবাড়ি ভিটেমাটি. বাজার, শতবর্ষী গাছ ভাসিয়ে নিয়ে গেছে সোমেশ্বরী। এখনও অনবরত ভাঙছেই। রাত জেগে পাহারা দিচ্ছে গ্রামের যুবকদল।

একবার থানা নির্বাহী এবং জেলা প্রশাসক এসে আশ্বাসের বানী শুনিয়ে গেছেন। শুনেছি বাজেটও হয়ে গেছে কিন্তু কোনো অজ্ঞাত কারণে  স্থগিত হয়ে গেছে। তাহলে প্রশাসন কি চায়না নদী ভাঙনের কবল থেকে এলাকাবাসীরা রক্ষা পাক?

প্রশাসনের ঘুম ভাঙবে কখন? যখন সব গ্রাম তলিয়ে যাবে তখন? পুরো গ্রামবাসীর আর্তি তাদের কানে ঢুকচ্ছে না, তাহলে কী তারা চায় তলিয়ে যাক নদী গর্ভে? পুরো গ্রাম বিলীন হয়ে যাক?

কামারখালি নিবাসীদের এখন একটাই প্রশ্ন-কবে কখন বাঁধ তৈরি হবে? শান্তিতে ঘুমাতে পারবো গ্রামবাসী? গ্রামবাসীর হাহাকারে টনক নড়বে কি প্রশাসনের?

।। জেবি মারাক, রানিখং- দুর্গাপুর।




সম্পাদক : মিঠুন রাকসাম

উপদেষ্টা : মতেন্দ্র মানখিন, থিওফিল নকরেক

যোগাযোগ:  ১৯ মণিপুরিপাড়া, সংসদ এভিনিউ ফার্মগেট, ঢাকা-১২১৫। 01787161281, 01575090829

thokbirim281@gmail.com

 

থকবিরিমে প্রকাশিত কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ। Copyright 2020 © Thokbirim.com.

Design by Raytahost