Thokbirim | logo

৮ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ | ২১শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

মান্দি মেয়ে হারিয়ে যায়, যায় কি? ।। জাজ্রিং মারাক

প্রকাশিত : আগস্ট ২২, ২০২০, ১৬:২০

মান্দি মেয়ে হারিয়ে যায়, যায় কি? ।। জাজ্রিং মারাক

লেখার  শিরোনাম নিয়েই বিস্তর বিতর্ক হয়ে যাবে যদি কেউ করতে চায়। আর করতে না চাইলে নিরবে দেখে যান. পড়ে যান, চিন্তার জন্য মাথাটাকে খোলা রাখুন। কয়েকদিন ধরে একটি নিউজ ঘুরছে সবার ফেসবুক ওয়ালে ওয়ালে। মেয়েটির নাম দিনা চাম্বুগং। সে ১৫ আগস্ট থেকে নিখোঁজ। খবরে বলা হয়েছে, দিনা ১৫ আগস্টের কলেজ অনুষ্ঠানে যোগ দিতে বাড়ি থেকে বেড়িয়ে গেছে। এদিকে কলেজের শিক্ষকগণ বলছে ১৫ আগস্টের অনুষ্ঠানে তারা কোনো ছাত্রছাত্রীদের ডাকেনি। মানে কী বুঝলেন পাঠক? এখন মাথায় প্রশ্ন আসতেই পারে,

-মেয়েটি কলেজের নাম করে বন্ধুদের সাথে কোথাও ঘুরতে গেছে। (ঘুরতে যাবার কথা বললে নিশ্চয়ই অভিভাবকবৃন্দ রাজি হতেন না।)

-প্রেমিকের সাথে ভেগে গেছে ( নিশ্চয়ই প্রেমিক ছিলো)

– বন্ধুদের সাথে বেড়াতে গিয়ে বিপদে পড়েছে ( হতেই পারে। দলে একজন তো থাকে যার কপাল সবসময়ই পোড়া)

-কোনো খারাপ বন্ধুর পাল্লায় পড়েছে ( পড়তেই পারে। তাকে তো  কেউ না কেউ চেয়েছে, প্রেম নিবেদনও হয়তো করেছে। কিংবা এলাকার মাস্তান ফোন করে ফিল্মি স্টাইলে ধরে নিয়ে গেছে। কিংবা সিরিয়ালের মতো ফোন করে স্পটে নিয়ে আটকে দিয়েছে)

এমন আরো অনেক প্রশ্ন মাথায় ঘুরছে। একজন কলেজ পড়ুয়া মেয়ে কয়েকদিন ধরে নিখোঁজ ফলে  মাথায় নানান প্রশ্ন আসবে স্বাভাবিক নয়কি? আপনাদের আসে না?  (প্রার্থনা করি ঈশ্বর যেন দিনা মেয়েটাকে সুস্থ শরীরে বাড়ি নিয়ে আসে)।

আপনারা যারা  দিনাকে নিয়ে চিন্তিত কিংবা  দিনার মতো হাজারও মেয়েদের নিয়ে চিন্তিত একটু ভাবুন কিংবা চোখ খুলে দেখুন আপনার পরিচিত কিংবা পাশের কোনো মেয়ে কী করছে? তার বন্ধু তালিকায় কে কে আছে? সে কার সাথে তার দিনের অর্ধেক সময় কাটায়। কিংবা  সে আসলে কী চায়? আমরা কি কোনোদিন কোনো সময় জানতে চাই?  বা চেয়েছি?

আসি অন্য প্রসঙ্গে, বর্তমান করোনার মহামারীতে আমরা কতটা ভালো  আছি? বিশেষ করে অর্থনৈতিক দিক দিয়ে? ঢাকা শহরের কথাই যদি চিন্তা করি তাহলে যেসমস্ত  মেয়েরা পার্লারে কাজ করতো তাদের বেশিরভাগ না হোক গুটি কয়েকজন তো গ্রামে চলে গেছে। আর যারা পার্লালে কাজ করতে আসে তারা উচ্চশিক্ষায় শিক্ষিত নয়। সর্বচ্চো ইন্টার পাশ, বেশি সংখ্যক নন মেট্রিক। বর্তমান সময়ে মেট্রিক পাশ করে সংসারের হাল ধরার জন্য চলে আসছে শহরে। আর বিউটি পার্লারের মতো চাকচিক্যময় পরিবেশে নিজেকে মনে হতেই পারে গারো ঐশ্বরিয়া রাই কিংবা দীপিকা পান্ডুকান!

এখন  করোনার আগের যে  জীবন কিংবা পরিবেশে তারা জীবন যাপন করেছে সেই  অভ্যস্ত জীবন খুব সহজেই কি করোনা মহামারিতে বদলে ফেলা যায়? আর কতজনের এমন মানসিকতা তৈরি হয়েছে? ফলে খুব সহজেই কচকচা টাকার মোহে ভুল পথে পা বাড়াচ্ছে না সেই খবর আমারা কতটা রাখছি? আমরা কি এমনও শুনছি না যে, ভালোবাসার লোভ দেখিয়ে ধর্ষণ? আসুন আমরা উত্তর নয় প্রশ্ন করতে  শুরু করি?

শিরোনাম দিয়েছি -মান্দি মেয়ে হারিয়ে যায়, যায় কি?  খুব সহজ একটা শিরোনাম। প্রশ্ন হতেই পারে, মান্দি মেয়ে কোথায় হারিয়ে যাবে? কেন হারিয়ে যাবে? এই শিরোনামে লেখা লিখতে হবে কেন? আর নাই? এমন কতকত প্রশ্ন। আমিও তাই বলি।এমন প্রশ্ন আমার মাথাতেও আসে। অনেকদিন আগে এক বড় ভাই বলেছিলো, তার পরিচিত গারো মেয়ের সাথে পরিচিত  বাঙালি ছেলের সাথে বিয়ের  বিষয়ে আলাপ নিয়ে। সেখানে ছেলের বড়ভাই নাকি মেয়ের বড় ভাইকে বুঝাচ্ছিল- বাঙালির সাথে মান্দি মেয়ের বিয়ে হলেও টিকার সম্ভাবনা খুবই কম। কারণ হচ্ছে- বাঙালি এবং মান্দির ভাষা, সংস্কৃতি, রীতিনীতি সর্ম্পূণ আলাদা। তাদের খাদ্যাভাস আলাদা।

এখন প্রশ্ন হচ্ছে এইসব কে ভাবে? কোন পরিবার ভাবে কি? কোন মেয়ে কিংবা ছেলে ভাবে? ভেবে কি প্রেম হয়? না, হয় না। তবে ভেবে -চিন্তে বিয়ে হয়। হয় তো?

ভালোবাসা নাকি দেখে ‘মন’টা কত ভালো, চেহারা কতটা সুন্দর, আচরণ কতটা ভদ্র! অবশ্য যৌন বিজ্ঞানে পড়েছিলাম খৎনা করা ছেলেদের প্রতি মেয়েদের নাকি আলাদা আকৃষ্ট থাকে। সেটা মান্দি মেয়েদের বেলাতেও সুক্ষ্ণ কাজ করে না সেই গবেষণা কে করেছে? কিংবা  লুদিয়া রুমা সাংমা থকবিরিমকে এক সাক্ষাৎকারে বলেছিলেন – ‘ একবার ট্রেনিং চালাচ্ছিলাম। সেই সময় ছেলেরা আমাকে বলল, আজং মেয়েরা আমাদের পছন্দই করে না। ছেলেদের কথা শুনে মেয়েরাই বলল- আজং তারা তো গিদর! তারা পড়ে না,  তারা চু খায়, ঠিকমত পড়ে না, তারা অপরিস্কার!’- থকবিরিম, ৯:৫৭:  ২৯ জুলাই ২০২০।

এইভাবে দুই পক্ষ থেকেই হাজারো কারণ বেরিয়ে আসবে। এর শেষ হবার নয়। কিন্তু মান্দি সমাজের যে সামাজিক অবক্ষয় শুরু হয়েছে এটা অস্বীকার করছেন কি? না স্বীকার করছেন? কোনটা?

মেয়ে হারিয়ে যাবার ঘটনা আগেও ঘটেছে। বহুবার ঘটেছে। অনেক কাহিনি আছে, কয়েকমাস পর স্বামী নিয়ে বাড়ি ফিরেছে। কিংবা এক গ্রাম থেকে পালিয়ে আরেক গ্রামে সংসার করছে বা করেছে। মান্দি সমাজে এমন অস্বীকৃত বিবাহ রীতিরও প্রচলন আছে। শুধু কিছু গামনা ( অর্থদণ্ড প্রদান) লাগে । মান্দি সমাজে খোঁজে দেখলে এখনও পাওয়া যাবে এমন পরিবারের। কিন্তু সেই সময়কার পরিবেশ আর বর্তমান সময়কার পরিবেশ একদম ভিন্ন। আগে লালসার জিভ ছোট ছিলো বর্তমানে বেড়ে গেছে । তবে কতটা বেড়েছে সেটার সঠিক মাপযোগ নাই। আছে কি?

এখন মিডিয়া-ফেসবুক আছে বলে জানতে পারি কার মেয়ে পালিয়েছে নাকি হারিয়েছে! কার স্বামী পরকীয়া করে মোবাইল অন রেখেও  দুদিন ধরে নিখোঁজ থাকে। এখন ঘটনা সব জলের মতো পরিস্কার হয়ে যায়। যায় না?

এখন মিডিয়ার কথায় আসি। গারো সমাজের প্রকৃত মিডিয়া  আছে কি? বাসি-পঁচা, প্যানপ্যানানি, ভুল বানান আর বাক্যে ভরা একেকটা নিউজ! এইসব নামধারী পোর্টালগুলো, ব্লগগুলো সমাজের প্রকৃত সমস্যা বা সেই খবর বা ঘটনার অন্তরালের ঘটনা কতটা তুলে আনছে? কিংবা পারছে? নাকি কিছু গুজব, কিছু ঘটে যাওয়া ঘটনার শিরোনাম কিংবা কপিপেস্ট করে নিজের নামে প্রকাশ করে জাতির উদ্ধার করছে?

এই যে নামধারী মিডিয়া অনেকে আবার ঘুমায়, হঠাশ জেগে কপিপেস্ট করে কিংবা শুভ্র বসনে হাসিমুখে ঘুরে বেড়ায়  তারা তো ধারাবাহিক ফিচার করতে পারে,  পারে না?  নানা দৃষ্টিভঙ্গি থেকে লিখতে পারে, পারে কি?  দিকনির্দেশনামূলক লেখা লিখতে পারে। শুধু পালিয়ে যাবার কিংবা হারিয়ে যাবার খবরটার জন্য অপেক্ষা না করে, ধর্ষণের খবর ফলাও করে না ছেপে ( অবশ্য লোকে খায়।তাই সবার আগে সেটাই দিতে হবে। যদিও বলি ধর্ষণ খারাপ অপরাধ কিন্তু খবর কিন্তু জব্বর! লাইনে লাইনে আঙুল চালিয়ে পড়ে, পড়ে কি?)  প্রতিবেদন, মন্তব্য কিংবা সমাজের লেখক-গবেষক, ধর্মীয় নেতাদের নীতিনির্ধারণীমূলক  লেখা প্রকাশ করতে পারে। পারে না?

শেষ কথা, মান্দি মেয়ে হারিয়ে যায় কি?  না,  হারিয়ে যায় না। হাজার হোক মেয়ে তো। গারো সম্প্রদায় মাতৃসূত্রীয়। তাই বলি, হারিয়ে যাবার আগেই সম্ভাব্য সব রাস্তা বন্ধ করে দিতে হবে। মনে রাখতে হবে, যে  বন্ধ রাস্তাকে টপকে যেতে পারে  সে সাধারণ থাকে না।

কভার ছবি : ইউটিউবার নীল নন্দিতা রিছিল।

জাজ্রিং মারাক :  তরুণ লেখক

আরো লেখা..

https://thokbirim.com/2020/07/22/%e0%a6%97%e0%a6%be%e0%a6%b0%e0%a7%8b-%e0%a6%89%e0%a6%aa%e0%a6%9c%e0%a6%be%e0%a6%a4%e0%a6%bf-%e0%a6%97%e0%a7%83%e0%a6%b9%e0%a6%95%e0%a6%b0%e0%a7%8d%e0%a6%ae%e0%a7%80-%e0%a7%a8%e0%a7%aa%e0%a6%98/




সম্পাদক : মিঠুন রাকসাম

উপদেষ্টা : মতেন্দ্র মানখিন, থিওফিল নকরেক

যোগাযোগ:  ১৯ মণিপুরিপাড়া, সংসদ এভিনিউ ফার্মগেট, ঢাকা-১২১৫। 01787161281, 01575090829

thokbirim281@gmail.com

 

থকবিরিমে প্রকাশিত কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ। Copyright 2020 © Thokbirim.com.

Design by Raytahost