Thokbirim | logo

২৬শে অগ্রহায়ণ, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ | ১১ই ডিসেম্বর, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ

প্রচুর বই পড়তে হবে, জ্ঞান আহরণ ছাড়া লেখালেখি সম্ভব না ।।কমল কর্নেল

প্রকাশিত : জানুয়ারি ২৭, ২০২০, ০৯:৪৯

প্রচুর বই পড়তে হবে, জ্ঞান আহরণ ছাড়া লেখালেখি সম্ভব না ।।কমল কর্নেল

কমল কর্নেল একাধারে তরুণ লেখক, উপন্যাসিক, ছোট গল্পাকার। কমল কর্নেল ছদ্মনামেই লেখালেখি করে যাচ্ছেন দীর্ঘদিন ধরে। আত্মপ্রচারহীন এই লেখকের এখন পর্যন্ত ১৪টি বই প্রকাশিত হয়েছে। নিয়মিত সম্পাদনা করেন আদিকণ্ঠ নামক ম্যাগাজিন। ছিলেন বাংলা একাডেমির তরুণ লেখক প্রকল্পের সদস্য। পড়াশোনা করেছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের দর্শন বিভাগ থেকে। পেশায় সরকারি চাকরিজীবী। চায়ে চায়ে আড্ডায় আজ কথা হচ্ছিলো এই  লেখকের সাথে। তার চুম্বক অংশ পাঠকদের জন্য তুলে ধরা হলো।

 

থকবিরিম : আদিবাসী লেখক হিসেবে অমর একুশে বইমেলা নিয়ে আপনার ভাবনা কেমন? এই নিয়ে কোনো প্রস্তাবনা?

কমল কর্নেল : একুশে বইমেলা নিয়ে আমার আগ্রহের কমতি নেই। ঢাকায় আসার পর থেকেই চেষ্টা করেছি বইমেলায় নিয়মিত অংশ গ্রহণ করতে। বইমেলায় অনগ্রসর জাতিগোষ্ঠিদের জন্যে পৃথক একটা স্টল রাখা উচিত। যেখানে আদিবাসী বিষয়ক প্রকাশনা, আদিবাসী লেখকদের লেখা গল্প,উপন্যাস স্থান পাবে। সেক্ষেত্রে  জ্ঞানপিপাষুরা বিচ্ছিন্নভাবে এদিক সেদিক না ঘুরে একজায়গায় সবার বই সংগ্রহ  করতে পারে।  লেখালেখিতে আগ্রহ বাড়বে।  এদিকে বাংলা একাডেমির আরো জোরালো ভূমিকা পালন করা উচিত।

থকবিরিম : বইমেলাতে আপনার কী বই আসছে? কোন প্রকাশনী থেকে আসছে?

কমল কর্নেল : বইমেলায় আমার দুটি উপন্যাস প্রকাশের অপেক্ষায়। স্বপ্ন ছোয়া ভালোবাসা আর স্বপ্নের মায়াজালে। সংগ্রহ করে রাখতে পারেন। প্রকাশিত হবে ভাষাচিত্র থেকে, স্টল নং ১৬৭,১৬৮,১৬৯,১৭০।

থকবিরিম : বই প্রকাশের আগের আর পরের জীবন সম্পর্কে মূল্যায়ন কেমন?

কমল কর্নেল : তরুণ লেখক হিসেবে যথেষ্ট সাড়া জাগানিয়া।  তবে আমি পাঠক সমাজকে বলবো প্রবীণদের পাশাপাশি নবীন লেখকদের বই পড়ুন, উৎসাহ দিন। বই কিনতে হয়তো খুব বেশি টাকা লাগে না, কিন্তু আপনার সহযোগিতা একজন লেখককে অনেক দূর এগিয়ে নিয়ে যাবে।  বই প্রকাশের পর পরিচিতির গণ্ডির বিস্তৃত ঘটবে এটাই স্বাভাবিক।

থকবিরিম : আপনার লেখালেখি শুরু কীভাবে?

কমল কর্নেল :  নটরডেম কলেজে পরাশোনা কালিন লেখালেখির ভূত মাথায় চাপে। কলেজের অভ্যন্তরীণ এতিম খানার লাইব্রেরি থেকে বই সংগ্রহ করে বই পরতাম। তখন থেকেই ধীরে ধীরে পাণ্ডুলিপি লেখা শুরু করি। ২০০২ সালে এসে বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াকালিন সময়ে প্রথম উপন্যাস স্বপ্ন বিলাস প্রকাশিত হয়। বন্ধু মহলে প্রচুর প্রশংসিত হয়েছে।  তাই আর বসে থাকি থাকিনি।  আর এভাবেই উপন্যাসের স্বপ্নের হাতেখড়ি।

থকবিরিম :আপনার সময়ে কারা লিখতো?

কমল কর্নেল : আসলে ওই সময়ে অনেকেই লিখতো।  সিনিয়রদের মধ্যে মতেন্দ্র মানখিন, জর্জ দা, বচন দা, নিতীশ দা, মনিন্দ্রনাথ মারাক তরুণদের মধ্যে পরাগ রিছিল, ম্যাগনেট, অরন্য চিরান, কার্তিক সকলের নাম মনে আনতে পারছি না দুঃখিত।

থকবিরিম : লেখালেখিকে সচল রাখার উপায় কি?

কমল কর্নেল :  প্রচুর বই পড়তে হবে জ্ঞান আহরণ ছাড়া লেখালেখি সম্ভব না।

থকবিরিম : লেখালেখি করতে গিয়ে কোনো  অভিজ্ঞতা? মজার বা দুখের?

কমল কর্নেল : লেখালেখি নিয়ে অনেক ভালো মন্দ অভিজ্ঞতার সম্মুখীন হয়েছি।

থকবিরিম : তরুণ লেখকদের জন্য আপনার পরামর্শ।

কমল কর্নেল : তরুণ প্রজন্মের যারা লিখছে আমি বলবো শুধু লিখলেই হবে না প্রচুর বই পড়তে হবে, জানতে হবে। গল্প ,  উপন্যাসের প্লট কীভাবে তৈরি করতে হবে, কবিতায় শব্দের ব্যবহার সবকিছু সমপর্কে ধারণা রাখতে হবে।

থকবিরিম : বর্তমানে আপনি কী লিখছেন? কী নিয়ে সময় কাটাচ্ছেন বা ব্যস্ত আছেন?

কমল কর্নেল : বর্তমানে আমি নিজস্ব পেশা নিয়েই ব্যস্ত আছি। পাশাপাশি লেখাজোখা চালিয়ে যাচ্ছি। সেই সাথে আদিকণ্ঠ নামক ম্যাগাজিন সম্পাদনা করি।

থকবিরিম : লেখালেখি নিয়ে আপনার ভবিষ্যত পরিকল্পনা কী?

কমল কর্নেল : আমার ইচ্ছে আছে, স্বপ্ন দেখি স্বপ্নগুলো ছুঁয়ে দেখতে চাই।  তাই এবারের প্রকাশিত একটা উপন্যাস থেকে একটা টেলিফিল্ম নির্মাণ করার ইচ্ছে আছে।




সম্পাদক : মিঠুন রাকসাম

উপদেষ্টা : মতেন্দ্র মানখিন, থিওফিল নকরেক

যোগাযোগ:  ১৯ মণিপুরিপাড়া, সংসদ এভিনিউ ফার্মগেট, ঢাকা-১২১৫। 01787161281, 01575090829

thokbirim281@gmail.com

 

থকবিরিমে প্রকাশিত কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ। Copyright 2020 © Thokbirim.com.

Design by Raytahost